প্রচ্ছদ বিশ্ব

পর্নভিডিও শেয়ার করে বরখাস্ত হলেন ৩২ মার্কিন দূতাবাস কর্মী

11
পর্নভিডিও শেয়ার করে বরখাস্ত হলেন ৩২ মার্কিন দূতাবাস কর্মী

কম্বোডিয়ায় নিযুক্ত ৩২ মার্কিন দূতাবাস কর্মীকে বরখাস্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্র। ফেসবুক ম্যাসেঞ্জার গ্রুপে পর্ন ভিডিও ও ছবি শেয়ার

করায় তাদের বরখাস্ত করা হয়।

স্ট্রেইট টাইমস ও বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, সম্প্রতি ফেসবুক ম্যাসেঞ্জার গ্রুপে দূতাবাসের কর্মীরা পর্ন ভিডিও ও ছবি শেয়ার করে। এগুলোর মধ্যে বেশ কয়েকটি ছবি দেখে ফেলেন দূতাবাসের এক কর্মীর স্ত্রী। তিনি দূতাবাসের কাছে এ বিষয়ে অভিযোগ করেন। পরে দূতাবাস বিষয়টি এফবিআইকে জানায়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দূতাবাসের এক কর্মী বলেছেন, ‘তাদের পরিচয়পত্র নিয়ে নেওয়া হয়েছে এবং এদের মধ্যে কয়েকজনের ফোন তল্লাশি করা হয়।

তিনি আরও জানান, এই ৩২ কর্মীর মধ্যে কম্বোডিয়া ও কম্বোডিয়া-আমেরিকান নাগরিক রয়েছেন। এদের অধিকাংশই নিরাপত্তা রক্ষী এবং কয়েকজন দাপ্তরিক কর্মী। এদের মধ্যে কোনো কূটনীতিক নেই।

সিরিয়ায় শতাধিক মিসাইল নিক্ষেপ করেছে মার্কিন মিত্ররা: রাশিয়া

সিরিয়ার ওপর শনিবার ভোররাতে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও কানাডা একযোগে মিসাইল হামলা চালিয়েছে। এসব মিসাইলের অনেকগুলো ভূ-পাতিত করেছে সিরিয়ার এয়ার ডিফেন্স। মিসাইল হামলার প্রতিক্রিয়ায় এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানায় রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

সেই বিবৃতিতে বলা হয়, এ হামলায় যুদ্ধবিমান ও যুদ্ধজাহাজ থেকে মার্কিনবাহিনী ও তাদের মিত্ররা শতাধিক মিসাইল নিক্ষেপ করে। মিসাইলগুলো ছিল ক্রুজ মিসাইল ও এয়ার-সারফেস (আকাশ থেকে ভূমি অভিমুখে ছোড়া) মিসাইল। তবে মিসাইল প্রতিহত করাতে রাশিয়ান প্রতিরক্ষার কোনো ইউনিট জড়িত ছিল না।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়য় আরও জানায়, দামেস্কের ৪০ কিমি দূরের আল-দুমাইর এয়ারপোর্ট লক্ষ্য করে ১২টি ক্রুজ মিসাইল ছোড়া হয়। মিসাইলগুলোর প্রতিটিকেই সিরিয়ান এয়ার ডিফেন্স ভূ-পাতিত করে। মিসাইলগুলো ভূ-পাতিত করতে রাশিয়ার তৈরি সারফেস-টু-এয়ার (ভূমি থেকে আকাশের দিকে ছোড়া) মিসাইল ব্যবহার করে দামেস্ক। কিন্তু রাশিয়া কোনো অংশ নেয়নি।

উল্লেখ্য, শনিবার ভোররাতে রাসায়নিক হামলার জন্য সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের বাহিনীকে দায়ী করে বিভিন্ন সরকার-নিয়ন্ত্রিত স্থাপনার ওপর একযোগে হামলা শুরু করে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্স। এ হামলাটিকে দেশটির ওপর পশ্চিমা শক্তির সবচেয়ে বড় হস্তক্ষেপ বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

শেয়ার

আপনার মন্তব্য করুন

Loading Facebook Comments ...