প্রচ্ছদ বিশ্ব

দোষারোপের পাশাপাশি ইসরাইলকে সতর্ক করলেন ট্রাম্প

24
দোষারোপের পাশাপাশি ইসরাইলকে সতর্ক করলেন ট্রাম্প

ইসরাইল-ফিলিস্তিনের বর্তমান সংকট নিরসনে ইসরাইলকে দোষারোপ করলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। শুধু তাই নয়, দোষারোপের পাশাপাশি প্রথমবারের মতো এবার ইসরাইলকে সতর্ক করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

ট্রাম্প তার সতর্কবার্তায় জানান, ইসরায়েলি বসতি ফিলিস্তিনের সঙ্গে শান্তি প্রক্রিয়াকে ‘জটিল’ করে তুলছে। ইসরাইলের হাইয়ুম পত্রিকায় দেয়া সাক্ষাৎকারে ইসরায়েলকে বিষয়টি মাথায় রাখার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। খবর বিবিসির।

ট্রাম্প বলেন, এ মুহূর্তে ফিলিস্তিন শান্তি স্থাপনের পথে নেই। আর কেবল তারাই নয়, ইসরায়েলের ব্যাপারেও আমার মনে হচ্ছে, তারা শান্তি স্থাপন করতে ইচ্ছুক না। সুতরাং, আমাদের কেবলই অপেক্ষা করে যেতে হবে আর দেখতে হবে কি হয়।

ট্রাম্প আরো বলেন, বসতি নিয়ে কথা বলব। বসতি স্থাপন এমন একটি বিষয় যেটি সবসময়ই শান্তি প্রক্রিয়াকে জটিল করেছে এবং খুবই জটিল করে তুলছে।

উল্লেখ্য, গত বছরের ডিসেম্বরে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসাবে স্বীকৃতি দিয়ে ফিলিস্তিনদের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি করেন ট্রাম্প। ফিলিস্তিনরা শান্তি আলোচনায় রাজি না হলে তাদেরকে সাহায্য বন্ধেরও হুমকি দেন ট্রাম্প।

মিশরে সামরিক অভিযানে নিহত ১৬

মিশরে সামরিক অভিযানে সরকারবিরোধী প্রচারে সচেষ্ট ১৬ জন নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া এ অভিযানে আরও ৩০ জনকে বন্দি করেছে মিশরীয় যৌথবাহিনী। উত্তরাঞ্চলীয় সিনাই উপদ্বীপে সামরিক অভিযান চালানো হয়। রবিবার এ তথ্য জানিয়েছেন সেনাবাহিনীর মুখপাত্র কর্নেল তামের রিফাই।

তিনি আরও জানান, যানবাহন, অস্ত্রাগার ও যোগাযোগের কেন্দ্রসহ বিদ্রোহীদের কয়েক ডজন আস্তানা ও স্থাপনা বিমান হামলায় গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

এক বিবৃতিতে রিফাই জানান, লুকিয়ে থাকার জন্য সন্ত্রাসীদের ব্যবহৃত ৬৬টি আস্তানা লক্ষ্য করে হামলা চালানো হয়। বিমান ও গোলাবারুদ হামলা থেকে নিজেদের বাঁচাতে এসব আস্তানা ব্যবহার করতো তারা। তবে হতাহতের যে সংখ্যা সেনাবাহিনী জানিয়েছে, তা নিরপেক্ষভাবে যাচাই-বাছাই করা যায়নি বলে আলজাজিরা দাবি করেছে।

নিল ডেলটা ও পশ্চিম ডেলটার কিছু অংশ ও সিনাই উপদ্বীপ থেকে সশস্ত্র বিদ্রোহীদের বিতাড়িত করতে দেশটির সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী ও বিমানবাহিনী শুক্রবার ‘সমন্বিত’ নিরাপত্তা অভিযান চালায়।

শেয়ার

আপনার মন্তব্য করুন

Loading Facebook Comments ...