প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয়

তারেক জিয়ার নেতৃত্ব মানছে না ২০ দল

140
তারেক জিয়ার নেতৃত্ব মানছে না ২০ দল

জিয়া অরফানেজ দুর্নীতি মামলায় গত বৃহস্পতিবার ৫ বছর কারাদণ্ড হওয়ার পরপরই বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম জিয়াকে

আদালত থেকে কারাগারে নেওয়া হয়্।

ওই দিনই বিএনপির নেতৃত্বে পরিবর্তন হয়ে এসেছেন বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক জিয়া। তবে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের নেতারা তারেককে ঐক্যের নেতা মানতে রাজি নন।

রোববার গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ের অনুষ্ঠিত জোটের বৈঠকে এমনটাই জানালেন এর নেতারা। ২০ দল ঘনিষ্ঠ একাধিক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

একাধিক সূত্র জানিয়েছে, বেগম জিয়া কারাগারে যাওয়ার পর থেকেই গত চারদিকে ২০ দলীয় অনেক নেতাকেই ফোন করেছেন লন্ডনে রাজনৈতিক আশ্রয়ে থাকা তারেক জিয়া। রোববারও ২০ দলীয় জোটের বৈঠকে ফোন করে সবার উদ্দেশ্যে বক্তব্য দেন তিনি। বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি জোটের নেতারা। তারেকের ভাষণ নিয়ে ২০ দলের নেতাদের মধ্যে অসন্তোষ ছড়িয়ে পড়ে।

বৈঠকেই ২০ দলের নেতারা জানিয়ে দেন, বিএনপি কী পরিবর্তন হলো সেটা তাঁদের বিষয় নয়, তবে খালেদা জিয়া যদি ২০ দলে থাকেন তাহলেই তারা জোটে আছেন, নাহলে নেই।

২০ দলের নেতারা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, তাঁদের নেতৃত্বে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ছিলেন খালেদা জিয়াই থাকবেন। বিএনপির চেয়ারপারসনের পরিবর্তন হলেও ২০ দলের নেতার পরিবর্তন তারা মেনে নেবেন না।

তাই বাধ্য হয়েই ২০ দলের বৈঠক শেষে প্রেস ব্রিফিংয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ২০ দলীয় জোট নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ছিলেন এবং তিনিই থাকবেন।

খালেদার মুক্তির দাবিতে প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করছে বিএনপি ও তার অঙ্গ সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা। আজ বেলা সাড়ে ১০টা থেকে মানববন্ধন শুরু হয়। এসময় নেতাকর্মীদের বিভিন্ন স্লোগান দিতে দেখা গেছে।

মানববন্ধনে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, জয়নাল আবদীন ফারুক, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী ও সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদসহ অসংখ্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত রয়েছেন।

এদিকে মানববন্ধন কর্মসূচিকে ঘিরে রাজধানীতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বাড়তি তৎপরতা লক্ষ করা গেছে। সকাল ৯টার দিকে রাজধানীর নয়াপল্টনের বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, সেখানে রাখা হয়েছে মহানগর পুলিশের এপিসি, জলকামান ও প্রিজনভ্যান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পুলিশের মতিঝিল জোনের অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) আরিফ হোসেন বলেন, ‘এটা স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। আর যেহেতু আজ বিএনপি ও ২০ দলের একটা কর্মসূচি আছে, তাই একটু সতর্কতা।’

তিনি আরো বলেন, ‘নগরবাসীর জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দায়িত্ব পুলিশের। আর সে জন্য বাড়তি এ সতর্কতা নেওয়া হয়েছে, যাতে কেউ আন্দোলনের নামে নাশকতা করতে না পারে।’

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার দুপুরে পুরান ঢাকার বকশীবাজারে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালতের বিচারক ড. আখতারুজ্জামান জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় রায় ঘোষণা করেন। রায়ে বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর এবং সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, মাগুরার সাবেক সংসদ সদস্য (এমপি) কাজী সলিমুল হক কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমানকে ১০ বছর করে কারাদণ্ডাদেশ এবং দুই কোটি ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

শেয়ার

আপনার মন্তব্য করুন

Loading Facebook Comments ...