প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয়

একতরফা নির্বাচনের খোয়াব দেখছে সরকার দলীয় অনেক সাংসদ

23
একতরফা নির্বাচনের খোয়াব দেখছে সরকার দলীয় অনেক সাংসদ

জিয়া অরফানেজ দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে।

এর পর থেকেই আওয়ামী লীগের অনেক সংসদ সদস্যের মধ্যে গা ছাড়া ভাব দেখা যাচ্ছে। তারা ধরেই নিয়েছেন বেগম জিয়ার নেতৃত্বে বিএনপি আর এ বছরের শেষে অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে না। এ কারণে একতরফা নির্বাচনের খোয়াব দেখা শুরু করেছেন এই এমপিরা।

আওয়ামী লীগের একাধিক সূত্রে জানা গেছে, গত জাতীয় নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন ভাবে নির্বাচিত অনেক এমপির মধ্যেই বেগম জিয়ার কারান্তরীণ হওয়ার পর গা ছাড়া ভাব দেখা যাচ্ছে। এলাকায় প্রচারণা থেকে শুরু করে মাঠের রাজনীতিতে তাঁদের দেখা মেলাই ভার। তাঁদের এমন মনোভাবের কারণে দলেরই সমূহ ক্ষতির আশঙ্কা করছেন সিনিয়ররা।

আওয়ামী লীগ পোঁড় খাওয়া দল, এর আগেও দলের গা ছাড়া ভাব বা অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসের কারণে ভুগতে হয়েছে তাদের। স্বৈরাচার এরশাদের পতনের পর ১৯৯১ সালের নির্বাচনে নিজেদের বিজয়ে অনেকটাই নিশ্চিত ছিল আওয়ামী লীগ। কিন্ত পরাজয়ের স্বাদ পেতে হয় ওই নির্বাচনে। আবার ২০০১ সালেরও নিজেদের বিজয়ে অনেকটাই আত্মবিশ্বাসী ছিল আওয়ামী লীগ। সেবারও নির্বাচনে জয়ের স্বাদ থেকে বঞ্চিত থাকতে হয়।

বিশেষজ্ঞদের মতে, এবার বিএনপির অবস্থান কোনঠাসা হলেও যেকোনো সময় তাদের নির্বাচনে অংশগ্রহণের সিদ্ধান্ত পরিস্থিতি অমূল পাল্টে দিতে পারে। তাই এমন সময় প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন নির্বাচনের খোয়াব দেখে গাছাড়া দিলে নির্বাচনের সময় পস্তাতে হবে।

আর সব দলের অংশগ্রহণে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনে সব সময়ই আগ্রহী আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দলের প্রধানই যেখানে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের প্রত্যাশা করেন সেখানে দলীয় এমপিদের একতরফা নির্বাচনের প্রত্যাশা সভাপতি নির্দেশ অমান্য করা।

কুমিল্লায় নাশকতার তিন মামলা: খালেদাকে গ্রেফতার দেখানো হচ্ছে

দুর্নীতির একটি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে কুমিল্লায় নাশকতার তিন মামলায় ‘শ্যোন অ্যারেস্ট’ দেখানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে পুলিশ। এরই মধ্যে এসব মামলার গ্রেফতারি পরোয়ানা কুমিল্লা থেকে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কাছে পাঠানো হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কুমিল্লা ডিবি পুলিশের ইন্সপেক্টর ফিরোজ একথা জানিয়েছেন।

২০১৫ সালের জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারিতে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে নাশকতার ঘটনায় তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছিল। অন্যান্যের সঙ্গে এ মামলায় খালেদা জিয়াসহ বিএনপির সাত শীর্ষ নেতা হুকুমের আসামি ছিলেন।

২০১৭ সালের পৃথক সময় ও গত জানুয়ারিতে খালেদা জিয়াসহ অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে এ মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন কুমিল্লার আমলি আদালত। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ের পর নতুন রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে তিন মামলায় পরোয়ানা ঢাকায় পাঠানো হলো।

শেয়ার

আপনার মন্তব্য করুন

Loading Facebook Comments ...